সোমবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৩
      Beta

সুনীল শেট্টি বললেন, ‘অফিশিয়ালি শ্বশুর হলাম’

বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশের সময় : সোমবার ২৩ জানুয়ারী ২০২৩ ০৯:৫৪:০০ অপরাহ্ন | বিনোদন

মাসখানেক ধরেই গুঞ্জন, জল্পনা চলছিল। দিন দুয়েক আগেই জানা যায় আথিয়া শেট্টির সঙ্গে সাত পাকে বাঁধা পড়তে চলেছেন ভারতীয় জাতীয় দলের ক্রিকেটার কে এল রাহুল। এবার অপেক্ষার পালা শেষ। সোমবার সুনীল শেট্টির খণ্ডালার ফার্মহাউজে চার হাত এক হল যুগলের। এর মাধ্যমেই আথিয়া ও রাহুল এখন থেকে বিবাহিত দম্পতি। মেয়ের বিয়ে প্রসঙ্গে সুনীল শেট্টি বলেন, ‘এখন থেকে আমি অফিসিয়ালি কেএল রাহুলের শ্বশুরমশাই’।

সোমবার (২৩ জানুয়ারি) সুনীল শেট্টির খান্ডালার বাগানবাড়িতে বসেছিল আথিয়া ও কেএল রাহুলের বিয়ের আসর। পরনে বেউজ রঙের ধুতি-পাঞ্জাবি। মেয়ের বিয়ের জন্য দক্ষিণী স্টাইলে সেজেছিলেন সুনীল।

মেয়ের বিয়ের অনুষ্ঠান শেষে বাগানবাড়ি থেকে বের হয়ে হয়ে আসেন সুনীল। সহযোগিতার জন্য পাপারাৎজিদের ধন্যবাদ জানিয়ে মিষ্টি বিতরণ করতে দেখা যায় সুনীলকে। তাঁর সঙ্গে ছিলেন আথিয়ার ভাই আহান শেট্টি।

শুধু তাই নয়, আথিয়ার বিয়ে উপলক্ষে পাপ্পারাজিদের জন্য দুপুরে যেমন মধ্যাহ্নভোজের ব্যবস্থা করেছিলেন, তেমনই বিকেলে বিয়ে সম্পন্ন হওয়ার পর মিষ্টিও বিতরণ করলেন সুনীল শেট্টি।

হাসিমুখেই বললেন, “এবার অফিশিয়ালি শ্বশুরমশাই হলাম। তা এই নতুন ভূমিকা নিয়ে কী বলবেন বলিউডের প্রবীন অভিনেতা? সাংবাদিকের প্রশ্ন শুনেই সুনীল শেট্টির তড়িৎ জবাব, নতুন তো কিছুই নয়। রাহুল আমার ছেলের মতোই। আমার পরিবারে আরেকটা ছেলে এল। আর বাবার ভূমিকা আমি ভালই পালন করতে জানি।” আর রিসেপশন কবে? সেই উত্তরও জানিয়ে দিলেন শ্বশুরমশাই সুনীল।

ভাই আহান শেট্টি বলেন, “কে এল রাহুল আমার কাছে সবসময়েই বড় ভাইয়ের মতো। ও পরিবারের আরেক সদস্য হওয়ায় আমি খুব খুশি।” প্রসঙ্গত, বিয়ের পরই মধুচন্দ্রিমায় যাবেন না আথিয়া ও রাহুল। এমনকী তারকাদম্পতির রিসেপশনও হবে আইপিএল টুর্নামেন্ট শেষে।

আনন্দবাজার, হিন্দুস্তান টাইমসসহ বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, সোমবার  বিকেল ৪.১৫ নাগাদ আথিয়া ও কেএল রাহুলের বিয়ে সম্পন্ন হয়। তবে এই বিয়ে হয়েছে খুবই ব্যক্তিগত পরিসরে। দুই পরিবারের লোকজন আর কাছের কিছু বন্ধুবান্ধব-ই এই বিয়েতে উপস্থিত ছিলেন। সুনীল শেট্টি পাপারাৎজিদের জানিয়েছিলেন, ‘আথিয়া-রাহুলে বিয়ে হলে ওদের আমি মুম্বই নিয়ে ফিরব, সঙ্গো গোটা পরিবার থাকবে, আপনারা নির্দ্বিধায় ছবি তুলতে পারবেন।’

গতকাল রবিবার ছিল আথিয়া-রাহুলের সঙ্গীত। ওইদিনই সকালে মেহেন্দি ও গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানও সম্পন্ন হয়। সেখানেও উপস্থিত ছিলেন নিকট বন্ধুবান্ধব ও আত্মীয়রা। সেই অনুষ্ঠানের একাধিক ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। সেখানে অতিথিদের একাধিক বলিউডি গানে নাচতেও দেখা যায়। ভেন্যুর বাইরে থেকেই ভিডিয়োগুলো করা হয়েছে। সেখানে অতিথিদের বেশরম রং, হাম্মা হাম্মা, জুম্মা চুম্মা দে দে, দেখা জো তুঝে ইয়ার, আজ কী পার্টি, ইত্যাদি গানে জমিয়ে নেচেছেন।

ভারতীয় গণমাধ্যমগুলোরে প্রতিবেদনে বলা হয়, সোমবার আথিয়া-রাহুলের বিয়েতে নিমন্ত্রিত ছিলেন শুধুমাত্র ১০০ জন। বিয়ের পোশাকে ছিল সাবেকিয়ানার ছোঁয়া, যার ডিজাইন করেছেন সব্যসাচী মুখোপাধ্যায়। দক্ষিণভারতীয় ঐতিহ্য মেনে ছিল বিয়ের মেনু। কলাপাতাতে খাবর পরিবেশন করা হয় বলে খবর পাওয়া গেছে।

নিমন্ত্রিতদের তালিকায় ছিলেন সলমন খান, জ্যাকি শ্রফ, কৃষ্ণ শ্রফ, অনুপম খের,অক্ষয় কুমার, বিরাট কোহলি, অংশুলা কাপুর, অর্জুন কাপুর সহ আরও বেশকিছু বলিউড ব্যক্তিত্ব। তবে বিয়ের অনুষ্ঠানে ফোন নিয়ে ঢোকার অনুমতি ছিল না বলেই জানা যাচ্ছে। এর আগে গত ২১ জানুয়ারি একটি ককটেল পার্টির আয়োজন করা হয়েছিল খান্ডালাতে।