শনিবার ১ অক্টোবর ২০২২
      Beta

‘এই ব্যাডা, ভিসি কি? ভিসি স্যার বল!' ঢাবি শিক্ষার্থীকে সহকারী প্রক্টর

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশের সময় : বুধবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১০:৫৫:০০ অপরাহ্ন | অন্যরকম

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের(ঢাবি) প্রশাসনিক জটিলতায় সৃষ্ট নানা রকম হয়রানি বন্ধের প্রতিবাদে ৮ দফা দাবিতে আমরণ অনশনে যাওয়া শিক্ষার্থী হাসনাত আব্দুল্লাহ’কে  দেখতে আসা এক শিক্ষার্থীর সঙ্গে সহকারী প্রক্টর অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ মাহবুবুর রহমানের রুঢ় আচরণের ঘটনা ঘটেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অনিয়ম বন্ধে ৮ দফা দাবিতে প্রশাসনিক ভবনের সামনে বুধবার আমরণ অনশনে অসুস্থ হয়ে পড়া শিক্ষার্থী হাসনাত আবদুল্লাহকে দেখতে গেলে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার একটি ভিডিও মুহুর্তের মধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।  

ভিডিওতে দেখা যায়,  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের শিক্ষক অধ্যাপক মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে কথা বলছেন।

ভিডিওতে শোনা যায়, অধ্যাপক মাহবুবুল রহমান এক ছাত্রকে বলছেন, 'এই ব্যাডা, তোর কথায় আনবে? বেয়াদবির একটা সীমা আছে। ভিসি কি? ভিসি স্যার বল!'

এরপর দেখা যায় তিনি ওই ছাত্রের আইডি কার্ড সীজ করতে বলেন। ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে বলতে দেখা যায় 'ভিসি কি? প্রক্টর কি? ভিসি কে কি স্যার বলা যায় না?'

তখন উপস্থিত শিক্ষার্থীদের মধ্যে অনেকে বলেন, তিনি এখানে গণ্ডগোল করতে এসেছেন। এরপর লাইভটি শেষ হয়ে যায়।

বিরূপ আচরণের শিকার শিক্ষার্থী গণমাধ্যমকে বলেন, “আমার অপরাধ ছিল শুধু সব কথার পরে ‘স্যার’ কেন বলিনি। আমি ‘ভিসি’, ‘প্রক্টর’, ‘রেজিস্টার’ শব্দগুলো ব্যবহার করেছি। এজন্য তিনি আমার সাথে এমন করেছেন।’

এবিষয়ে প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ও (সহকারী প্রক্টর  ড. মুহাম্মদ মাহবুবুল রহমান) আসলে একটু বেশি আবেগী। আমি তাকে বলেছি, এভাবে কথা বলা যাবে না “

প্রসঙ্গত, প্রশাসনিক জটিলতায় সৃষ্ট নানা রকম হয়রানি বন্ধের প্রতিবাদে ৮ দফা দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী হাসনাত আব্দুল্লাহ একক অবস্থান কর্মসূচির পর এবার আমরণ অনশনের ঘোষণা দিয়েছেন।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুর দেড়টা থেকে প্রশাসনিক ভবনের সামনে শুরু হওয়া ওই অনশনের প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন অনেকে। শান্তিপূর্ণ অবস্থান কর্মসূচীতে এসে সহকারী প্রক্টর অধ্যাপক মাহবুবুল রহমানের এরূপ রুঢ় আচরণের নিন্দা জানাচ্ছেন অনেকেই।সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক লাইভের কমেন্টে তার আচরণ নিয়ে নানা ধরণের মন্তব্য প্রকাশ পেয়েছে।