সোমবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৩
      Beta

‘পাঠান’ দেশে আসলে লাভের ১০ শতাংশ চায় শিল্পী সমিতি

বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশের সময় : বুধবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৩ ০৭:৫৪:০০ অপরাহ্ন | বিনোদন

ভারতে বুধবার মুক্তি পেয়েছে বলিউড তারকা শাহরুখ খানের পাঠান। তাই গোটা ভারতে আজ উৎসব মুখর পরিবেশ।পাঠান জ্বরে শুধু ভারত নয় কাপছে গোটা বিশ্ব। ভারত ছাড়াও ১০০ টির বেশি দেশে মুক্তি পেয়েছে পাঠান।বাংলাদেশেও পাঠান মুক্তির কথা ছিল কিন্তু তথ্য মন্ত্রনালয় এই ব্যাপারে এখনো সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পারেনি।

বাংলাদেশের সিনেমাপ্রেমি থেকে শুরু করে,পরিচালক সমিতি শিল্পী সমিতি,হল মালিকসহ সকলেই পাঠান দেশে মুক্তি দেওয়ার পক্ষে রয়েছেন।

শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক নিপুণ আক্তার বলেন, “বলিউডের ছবি আসুক। বাংলাদেশে হলিউডের ছবি চলছে। হলিউডের সঙ্গে একযোগে এদেশে মুক্তি দেওয়া হচ্ছে। ইংরেজি ছবির সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে বাংলা ছবিগুলো চলছে। তাহলে হিন্দি ছবি কেন মুক্তি পাবে না?”

নিপুণ আরও বলেন, “আমি মনে করি, আমাদের এখানে এমন কিছু সিনেমা হচ্ছে যেগুলো সিনেমা, টেলিফিল্ম, নাটক কিছুই না; বলিউডের সিনেমা মুক্তি পেলে এসব মানহীন সিনেমাগুলো নির্মাণ বন্ধ হয়ে যাবে।”

বলিউডের ছবি মুক্তি পেলে কোনো সমস্যা নেই উল্লেখ করে ঢালিউড অভিনেত্রী আরও বলেন, “আমাদের যেসব ফেস্টিভ্যাল আছে (ঈদ-পূজা, বিশেষ দিবস) এই সময়গুলো যেন বলিউডের ছবি রিলিজ না দেয়; ফেস্টিভ্যালে যেন শুধু দেশি সিনেমা থাকে এটাই চাওয়া। এটা শুধু আমার একার সিদ্ধান্ত নয়, সিদ্ধান্তটা শিল্পী সমিতির।”

বলিউডের ছবি বাংলাদেশে আসার ব্যাপারে ইতোমধ্যে শিল্পী সমিতির সদস্যরা একত্রিত হয়ে একটি বৈঠক করেছেন। নিপুণ বলেন, “সংশ্লিষ্টদের কাছে একটি লিখিত প্রস্তাবও দিয়েছিলাম, বলিউডের যে ছবিটা মুক্তির পর এদেশে লাভ হবে সেখানকার ১০ পার্সেন্ট শিল্পী সমিতিতে দেবে। সমিতিতে দিলে আমাদের ফান্ড বাড়বে এবং সেই অর্থ শিল্পীদের জন্যই ব্যয় করা হবে। এখনও এই প্রস্তাবের ফিডব্যাক আসেনি।”

সিনেমা হলমালিকরাও দ্বিধায় আছেন উল্লেখ করে নিপুণ বলেন, বলিউডের ছবি এলে হলগুলো বাঁচবে। হল মালিকরা দ্বিধায় আছে। লোন নিয়ে বন্ধ হল খুললে বা সংস্কার করলে দুই বছর পর থেকে লোনের টাকা ছবি চালাতে না পারলে কীভাবে খুলবে? আমি মনে করি আগে হল বাঁচাতে হবে তারপর শিল্প বাঁচবে।

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার প্রাপ্ত এই অভিনেত্রী মনে করেন, এখানে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার কিছু নেই। তিনি বলেন, আমাদের অনেক অনেক মেধাবী নির্মাতা এবং টেকনিশিয়ান আছে যে ইতোমধ্যেই প্রমাণিত হয়েছে। বাইরের ছবি এলে প্রতিযোগিতা বাড়বে। তাই বলিউডের ছবি এলে সবাই লাভবান হবেন।

কিছুদিন আগে বলিউডের ছবি বাংলাদেশে আমদানির পক্ষে সম্মতি দিয়েছে উল্লেখ করে শিল্পী সমিতির সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, “ছবির সংখ্যা যেহেতু আমরা বাড়াতে পারিনি, তাই প্রস্তাব আছে সিনেমা হলগুলো বাঁচাতে কিছু ছবি যদি বাইরে থেকে আসে তাহলে এটা বেনিফিট হতে পারে। সরকার সবকিছু করে দেবে না। আমাদের চলচ্চিত্র নিয়ে আমাদেরকেই ভাবতে হবে। আমরা যদি একযোগে যাই এবং একসুরে কথা বলি তাহলে হয়তো সরকার কিছু করবে।”

তিনি আরও বলেন, “সাফটা চুক্তির আওতায় সিনেমাটি মুক্তির জন্য মিটিং করেছে তথ্য মন্ত্রনালয়। কিন্তু সিদ্ধান্ত আসতে আরো সময় লাগবে তারা বলে জানিয়েছেন।”

প্রসঙ্গত, সিদ্ধার্থ আনন্দ পরিচালিত যশরাজ ফিল্মসের এই ছবিতে শাহরুখের বিপরীতে অভিনয় করেছেন দীপিকা পাড়ুকোন। এছাড়াও বড় এক চরিত্রে আছেন জন আব্রাহাম, আছেন সালমান খানও।